চট্টগ্রাম-১১ আসনের বড়পুল হতে শুরু হওয়া ২৭ নং ওয়ার্ডে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী টানা তিনবারের নির্বাচিত সংসদ সদস্য এম. আবদুল লতিফ এর নির্বাচনী গণসংযোগে চটগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ও মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ রেজাউল করিম চৌধুরী বাংলাদেশের হৃৎপিন্ড খ্যাত চট্টগ্রাম-১১ আসনে আওয়ামী লীগ দলীয় নৌকার প্রার্থী এম. আবদুল লতিফ-কে বিজয় নিশ্চিত করতে আওয়ামী লীগের সকল কাউন্সিলর, আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ এবং সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের নৌকার পক্ষে ভোট যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়ার নির্দেশ দিয়েছেন।

তিনি বলেন প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা রাজনৈতিক কৌশলগত কারণে স্বতন্ত্র প্রার্থীর কথা বললেও, সারাদেশে বিভিন্ন সমাবেশে তিনি দেশের মানুষকে নৌকায় ভোট দেয়ার আহবান করছেন। কোথাও স্বতন্ত্র প্রার্থীর নাম উচ্ছারণ করছেন না। আমরা চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগও নেত্রীর সেই আহবানকে দলীয় চূড়ান্ত নির্দেশনা মেনে নৌকার প্রার্থী এম. আবদুল লতিফ এর পক্ষে মাঠে নেমেছি। এই নৌকা মুক্তিযুদ্ধের, এই নৌকা বঙ্গবন্ধুর, এই নৌকা শেখ হাসিনার, এবারের নৌকার বিজয় বাংলাদেশে ও বাংলাদেশের মানুষের জন্য ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ।

তিনি আরো বলেন-বাংলাদেশের অর্থনীতিকে এগিয়ে নিতে চট্টগ্রাম বন্দরের এই আসন চালিকাশক্তি হিসেবে কাজ করে। গুরুত্বপূর্ণ এই আসনটি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী তথা রাষ্ট্রের কাছে অধিক গুরুত্ব বহন করে। তাই চট্টগ্রাম-১১ আসনে নৌকাকে বিজয়ী করে নেত্রীর হাতে উপহার দেয়া আওয়ামী পরিবারের প্রতিটি নেতাকর্মীর কাছে ঈমানী দায়িত্ব হয়ে দাঁড়িয়েছে। ছোট খাটো ভুলভ্রান্তি ভুলে সকলকে নৌকার পক্ষে মাঠে নামার নির্দেশ দেন।

চট্টগ্রাম-১১ আসনের নৌকার প্রার্থী এম. আবদুল লতিফ মহানগর নেতৃবৃন্দের প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বলেন-সারাদেশে শেখ হাসিনার নৌকাকে বিজয়ী করতে ঐক্যবদ্ধ আওয়ামী লীগই যথেষ্ট। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে টানা চতুর্থবার ক্ষমতায় এনে স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণের জন্য নৌকায় ভোট দিন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন-চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শফিক আদনান, আইনবিষয়ক সম্পাদক এডভোকেট ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী, শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক মাহবুবুল হক মিয়া, শিক্ষা ও মানবসম্পদ বিষয়ক সম্পাদক জালাল উদ্দীন ইকবাল, যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক দিদারুল আলম চৌধুরী, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক চন্দন ধর, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক মশিউর রহমান চৌধুরী, উপ-দপ্তর সম্পাদক কাউন্সিলর জহর লাল হাজারী, উপ-দপ্তর সম্পাদক কাউন্সিলর শহীদুল আলম,
সদস্য, মহানগর শ্রমিক লীগের সভাপতি বখতিয়ার উদ্দিন খান, সদস্য কাউন্সিলর গোলাম মোহাম্মদ চৌধুরী ও কাউন্সিলর আবদুল বারেক, চট্টগ্রাম মহানগর যুবলীগের সংগ্রামী সহ-সভাপতি দেবাশীষ পাল দেবুসহ বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছসেবক লীগ, ছাত্রলীগ, শ্রমিকলীগ, মহিলা আওয়ামীলীগ এবং স্বাধীনতা নারী শক্তি’র নেতৃবৃন্দ অংশ গ্রহন করেন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।